র্সবশেষ শিরোনাম

সোমবার, নভেম্বর ১২, ২০১৮

বাংলা পত্রিকা

Main Menu

সপ্তাহের শুরুতে সম্পূর্ণ নতুন সংবাদ নিয়ে

নিউইয়র্কের হাসপাতালে গুলি নিহত ১

বাংলা পত্রিকা ডেস্ক: ব্রঙ্কসের একটি হাসপতালে এক বন্ধুকধারী অতর্কিত হামলা ও গোলাগুলিকে কেন্দ্র করে পুরো নিউইয়র্ক সিটিতে আতঙ্ক নেমে আসে। প্রথম ধারণা করা হচ্ছিল এটা সন্ত্রাসী হামলা। অবশ্য মুহুর্তেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে পুলিশ। শুক্রবার বিকেলের এ হামলার ঘটনাকে ঘিরে সৃষ্টি উত্তেজনা ও আতঙ্ক শেষ হয় কয়েক ঘন্টার ব্যবধানে। অবশ্য পরে জানানো হয়, হামলাকারি নিজেই একজন চিকিৎসক।
ব্রঙ্কস-লেবানন হাসপাতালের ভিতরে অতর্কিত এ হামলায় একজন চিকিৎসক’সহ বন্ধুকধারি নিজেও নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। হামলাকারী নিহত হওয়া আগে কমপক্ষে ছয়জন মানুষকে লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়।  হেনরি বেলো নামে পরিচিত, যিনি আগে হাসপাতালেই কাজ করতেন। নিউইয়র্ক সিটির পুলিশ কমিশনার জেমস ওনিলে এক বিফ্রিংয়ে বলেন, এটি ছিল আত্মঘাতী হামলা। তবে, বন্দুকধারী নিজে আতœহত্যা করেছেন, না কি পুলিশের গুলিতে মারা গেছেন বিষয়টি পুরোপুরি নিশ্চিত নন অনেকে। হাসপাতালটির আশ-পাশে বাংলাদেশীদের তেমন বসবাস না থাকলেও ঘটনার পর ব্রঙ্কসের বাংলাদেশী অধ্যুষিত এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনা স্থল থেকে উদ্ধার হওয়া এবং হাসপাতালে অপেক্ষমান রোগি ও স্বজনরদের মাঝেও নেমে আসে আতঙ্ক।
এদিকে, হেনরি বেলো নামের বন্দুকধারী নিজেও একজন চিকিৎসক বলে নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে জানানো হয়েছে, বন্দুকধারী তিনিও লেবানন হাসপাতাল ব্রঙ্কসের কাজ করতেন। কিন্তু হঠাৎ কেন তিনি ডাক্তার বেশে অতর্কিত হামলা চলাবেন সে বিষয়টি এখনো পরিস্কার নয়।
তবে ধারণা করা হচ্ছে তিনি মানসিক ভারসাম্য ছিলেন। আবার কেউ কেউ বলছেন, সহকর্মীদের সাথে পূর্ব শত্রুতা কিংবা ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশও ঘটতে পারে। শেষ খবরে বন্দুকধারী চিকিৎসক হেনরি নিজেও মারা গেছেন। হাসপাতালটির ১৬ তলায় ঘটনাটি ঘটার সময় অগ্নিনির্বাপক তথা ফায়ার এলার্মিং সিস্টেম বন্ধ করে রাখেন হেনরি বেলো। ধারণা করা হচ্ছে তিনি নিজেও, আগুনে পুড়ে যেতে চেয়েছিলেন। যদিও পুলিশের সাথে গোলাগুলি ও বন্দুকধারীর গুলিতে সৃষ্ট সংঘর্ষে আরো ছয়জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় কোন বাংলাদেশী হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। ঘটনার তদন্ত করছে এনওয়াপিডি’র বিশেষ টিম। মেডিকেল লিস্টের তথ্যে নিহত বন্দুকধারী হেনরি মেডিসিন বিভাগের ডাক্তার ছিলেন।
ব্রঙ্কসের লেবানন হাসপাতালে গোলাগুলী ও চিকিৎসকদের ওপর অতর্কিত হামলার নিন্দা জানিয়েছেন, সিটি মেয়র বিল ডি ব্লাজিও। তিনি বলেন, এ ধরণের ঘটনা অপ্রত্যাশিত। তবে, বিষয়টি সহিংসতা বলেও অভিহিত করেছেন  মেয়র। শুক্রবার ঘটনার খবরে হসাপতালের কাছে ছুটে যান মেয়র। এসময়ে উপস্থিত গণমাধ্যমকে দেয়া ব্রিফিংয়ে ঘটনার বর্ননাও তুলে ধরেন ব্লাজিও। এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার পক্ষ থেকে লেবানন হসপিটালের হামলা সন্ত্রাসী কর্মকান্ড নয় বলে দাবি করেছে। সিটি মেয়রও বিষয়টিকে সন্ত্রাসি হামলা হিসেবে দেখতে নারাজ। (টাইম টেলিভিশন)

এ রকম আরো খবর

যে কারণে মার্কিন মধ্যবর্তী নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ

অ্যান্ড্রু হ্যামন্ড: যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনে আভাস পাওয়া গেছে, অনেক ভোটারবিস্তারিত

কারাগার থেকে ছাড়া পেলেন আসিয়া বিবি

বাংলা পত্রিকা ডেস্ক: পাকিস্তানে মৃত্যুদন্ড থেকে খালাস পাওয়ার পর খিষ্টানবিস্তারিত

‘ইতিহাস গড়তে আসিনি, আমরা পরিবর্তনের জন্য এসেছি’

বাংলা পত্রিকা ডেস্ক: মঙ্গলবার (৬ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত যুক্তরাষ্টের মধ্যবর্তী নির্বাচনেবিস্তারিত

  • ‘আমিই ইউএস কংগ্রেসে প্রথম হিজাবধারী মুসলিম নারী’
  • ট্রাম্পের সামনে অনেক বাধা আছে অভিশংসনের ভয়ও
  • নিম্নকক্ষে ডেমোক্রেটদের বিজয়
  • আলোচিত বিজয়ী  যারা
  • সিনেটে রিপাবলিকানদের জয় প্রতিনিধি পরিষদ ডেমোক্রেটদের
  • অভিবাসী ভীতি ও অর্থনীতিই মূল হাতিয়ার প্রেসিডেন্টের : বর্ণবাদের দ্বন্দ্বই ট্রাম্পের মূলধন : মঙ্গলবার বদলে যেতে পারে ট্রাম্প-আমেরিকা
  • হাডসন নদীতে দুই সউদী বোনের লাশ!
  • তৃতীয় শক্তির উত্থান চায় যুক্তরাষ্ট্রের ৫৭% মানুষ
  • ১৮৯ আরোহী নিয়ে সমুদ্রে ইন্দোনেশিয়ার বিমান বিধ্বস্থ
  • হিন্দিকে পেছনে ফেলল বাংলা, শেষ সাত বছরে আমেরিকায় বাঙালির সংখ্যা বাড়ল ৫৭ শতাংশ
  • ট্রাম্প-বিরোধীদের বাড়িতে বাড়িতে বোমা
  • এক লটারিতেই তিনি পাচ্ছেন ১৫০ কোটি ডলার!
  • error: Content is protected !! Please don\'t try to copy.