র্সবশেষ শিরোনাম

সোমবার, নভেম্বর ১২, ২০১৮

বাংলা পত্রিকা

Main Menu

সপ্তাহের শুরুতে সম্পূর্ণ নতুন সংবাদ নিয়ে

নিউইয়র্ক সিটি নির্বাচন-২০১৭ : মেয়র ব্লাজিও সহ পাঁচ বরো প্রেসিডেন্ট পুন: নির্বাচিত

সিটি হলে বাংলাদেশী কমিউনিটির টার্গেট ২০২১

সালাহউদ্দিন আহমেদ: নিউইয়র্ক সিটির নির্বাচনে মেয়র বিল ডি ব্লাজিও সহ সিটির ৫ বরো প্রেসিডেন্ট বিপুল ভোটে পুন: নির্বাচিত হয়েছেন। এদিকে অভিবাসী বান্ধব হিসেবে পরিচিত এবং বাংলাদেশী কমিউনিটি সহ অন্যান্য কমিউনিটির বন্ধু হিসেবে মেয়র ব্লাজিও’র পুন: নির্বাচনে নিইয়র্কবাসীসহ প্রবাসী বাংলাদেশী কমিউনিটি খুশী। বিশেষ করে তার বিজয়ে বাংলাদেশী কমিউনিটিতে আনন্দোল্লাস লক্ষ্য করা গেছে। এবারের নির্বাচনে বাংলাদেশী অধ্যুষিত নিউইয়র্ক সিটির জ্যামাইকা, জ্যাকসন হাইটস, এস্টোরিয়া, ওজনপার্ক, ব্রুকলীন ও ব্রঙ্কসে বসবাসকারী বাংলাদেশী কমিউনিটির ব্যাপক অংশগ্রহণ লক্ষ্য করা গেছে। অপরদিকে চলতি বছরের নির্বাচন সহ বিগত বছরগুলোর নির্বাচনের অভিজ্ঞতায় নিউইয়র্ক সিটি হলে প্রতিনিধিত্ব করতে বাংলাদেশী কমিউনিটির টার্গেট আগামী ২০২১ সাল। কেননা চার বছর পর ২০২১ সালের নভেম্বর মাসেই সিটি নির্বাচন হওয়ার কথা। এই চার বছর নিজেদের প্রতিনিধিকে তৈরী করে সিটি কাউন্সিল মেম্বার পদে বাংলাদেশী কমিউনিটির প্রতিনিধি নির্বাচত করার জন্য এখন থেকেই কাজ করতে হবে বলে সচেতন প্রবাসীরা অভিমত ব্যক্ত করেছেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, ২০২১ সালের সিটি নির্বাচনে কুইন্স বরোর ডিষ্ট্রিক্ট-২৪ ছাড়াও সিটির একাধিক কাউন্সিলম্যান মেম্বার পদ শূণ্য হতে চলেছে বা নতুন প্রার্থী আসতে হবে। সেই হিসেবে ২০২১ সালে নতুন মুখের সিটি হলে প্রতিধিত্ব করার সুযোগ রয়েছে। আর যারা এই পদে প্রার্থী হতে চান তাদেরকে এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে। উল্লেখ্য, চলতি বছর অনুষ্ঠিত নিউইয়র্ক সিটির ডিষ্ট্রিক্ট-২৪ আসন থেকে বাংলাদেশী-আমেরিকান টি রহমান ও ডিষ্ট্রিক্ট-৩২ আসন থেকে অপর বাংলাদেশী-আমেরিকান হেলাল শেখ প্রাইমারী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে আলোচিত হয়েছেন। তারা ডেমোক্র্যাট দল থেকে প্রার্থী হয়েছিলেন। অবশ্য মোহাম্মদ টি রমহমান গত ৭ নভেম্বররের নির্বাচনে একই আসন থেকে প্রার্থী হয়ে পরাজিত হন। মোহাম্মদ টি রহমান ও হেলাল শেখ অগামী নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দল থেকে পুনরায় প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানান। সূত্র মতে, বাংলাদেশী কমিউনিটি ঐক্যবদ্ধ হয়ে ‘যোগ্য প্রার্থী’ মনোনীত করে পরিকল্পিতভাবে এখন থেকেই কাজ শুরু করলে আগামী ২০২১ সালের নির্বাচনে কুইন্সের জ্যামাইকা বা জ্যাকসন হাইটস, ব্রুকলীনের ওজনপার্ক এবং ব্রঙ্কসের পার্কচেষ্টার এলাকা থেকে প্রতিনিধি নির্বাচন করার সুযোগ রয়েছে।
চলতি বছরের সিটি নির্বাচনে মূলধারার রাজনীতিক মোশেদ আলম, মাফ মিসবাউদ্দিন, ডেমোক্র্যাটিক ডিষ্ট্রিক্ট লীডার লার্জ এটর্নী মঈন চৌধুরী, ফার্মাসিস্ট আব্দুল আওয়াল সিদ্দিকী, মুক্তিযোদ্ধা সরাফ সরকার, ওয়েলকেয়ার-এর সিনিয়র ম্যানেজার সালেহ আহমেদ, জেবিবিএ নিউইয়র্ক-এর সিনিয়র সহ সভাপতি লায়ন শাহ নেওয়াজ, মূলধারার রাজনীতিক ও কমিউনিটি বোর্ড মেম্বার এডভোকেট এন মজুমদার, আব্দুস শহীদ, সৈয়দ ইলিয়াস খসরু, বাংলাদেশ সোসাইটির ট্রাষ্টিবোর্ড সদস্য আলী ইমাম শিকদার, অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন, সিনিয়র সহ সভাপতি আব্দুর রহীম হাওলাদার, সাবেক সহ সভাপতি কাজী আজহারুল হক মিলন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফখরুল আলম, কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলী, শিক্ষা ও সাহিত্য সম্পাদক আহসান হাবীব, জ্যামাইকা বাংলাদেশ ফ্রেন্ডস সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও কমিউনিটি বোর্ড মেম্বার ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আবুল ফজল দিদারুল ইসলাম, আমজাদ হোসেন সেলিম, ইমরান খান বুলু, শিবলী নোমনী, ফাহাদ সোলায়মান, কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট ড. জাহাঙ্গীর কবীর, সেবুল উদ্দিন, মাজেদা উদ্দিন, আহসান হাবিব, কাজী আশরাফ হোসেন নয়ন, এএফ মিসবাহউজ্জামান, রোকেয়া আক্তার, এডভোকেট রুবাইয়া রহমান, জ্যামাইকা বাংলাদেশ ফ্রেন্ডস সোসাইটির সাবেক সভাপতি বিলাল চৌধুরী প্রমুখ বিশিষ্ট ব্যক্তির অংশগ্রহণ ছিলো চোখে পড়ার মতো।
মেয়র ব্লাজিও পুন:নির্বাচিত: নিউইয়র্ক সিটির স্থানীয় সরকার নির্বাচনে মেয়র বিল ডি ব্লাজিও বিপুল ভোটে পুনরায় জয়ী হয়েছেন। মেয়র ব্লাজিও পরবর্তী চার বছরের জন্য বিশ্বেও রাজধানী খ্যাত নিউইয়র্ক সিটির মেয়র নির্বাচিত হলেন। মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) এই নির্বাচনে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এটি ছিলো নিউইয়র্ক সিটি ১১০তম মেয়র নির্বাচন। নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দলীয় ব্লাজিও পেয়েছেন ৭ লাখ ২৬ হাজার ৩৬১ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি রিপাবলিকান দলীয় প্রার্থী নিউইয়র্ক ষ্টেট অ্যাসেম্বলীওম্যান নিকল মাল্লিওতাকিস পেয়েছেন ৩ লাখ ৩ হাজার ৭৪২ ভোট। মেয়র ব্লাজিও পেয়েছেন শতকরা ৬৬.৫ ভাগ ভোট। আর অ্যাসেম্বলীওম্যান নিকল মাল্লিওতাকিস পেয়েছেন শতকরা ২৭.৮ ভাগ ভোট।
নিউইয়র্ক সিটি নির্বাচনে মেয়র পদের পাশাপাশি সিটি প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ পাবলিক অ্যাডভোকেট ও কম্পট্রোলার পদ ছাড়াও ৫ বরোর প্রেসিডেন্ট, ২ জন ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি ও ৫১ জন সিটি কাউন্সিলর পদেও নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এসব পদে ক্ষমতাসীনারই জয়লাভ করেছেন বলে প্রাথমিক খবওে জানা গেছে। নানা কারণেই নিউইয়র্ক সিটি নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ। মঙ্গলবার ভোর ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত টানা ভোট গ্রহণ চলে। উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের সাংবিধানিকভাবে নভেম্বর মাসের প্রথম সোমবারের পরের দিন মঙ্গলবার হলো হচ্ছে ‘ইলেকশন ডে’। এদিন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্থানে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সেই হিসাবে এবারের ‘ইলেকশন ডে’ ছিলো ৭ নভেম্বর মঙ্গলবার। এই নির্বাচন ঘিরে বাংলাদেশী কমিউনিটি সরব হয়ে উঠে। প্রার্থীদের সমর্থনে সভা-সমাবেশ আর নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেন বাংলাদেশী কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ সহ প্রবাসী বাংলাদেশীরা।
মঙ্গলবারের নির্বাচনে নিউইয়র্ক সহ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে কেন্দ্রগুলোতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হলেও ঠান্ডা সহ প্রতিকূল অবস্থা বিরাজ করায় কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি কম লক্ষ্য করা গেছে। অনেকে ভোট দিয়ে কাজে চলে গেছেন। আবার অনেকে কাজ থেকে বাসায় ফেরার পথে ভোট দেন। দিনের বেলায় কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিত ছিলো কম। বিকেলের দিকে বা সন্ধ্যায় ভোট কেন্দ্রে কিছুটা ভীড় বেড়ে যায়।
নিউইয়র্ক সিটির বোর্ড অব ইলেকশন সূত্রে জানা যায়, এবারে নির্বাচনে মেয়র পদে বর্তমান মেয়র বিল ডি ব্লাজিও ছাড়াও আরো ছয়জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। মেয়র পদেও অন্যান্য প্রার্থীদের মধ্যে রিফর্ম পার্টির প্রার্থী সাল আলবানিসীর প্রাপ্ত ভোট ২২ হাজার ৮৯১, গ্রীন পার্টির প্রার্থী আকিম ব্্রাউডারের প্রাপ্ত ভোট ১৫ হাজার ৭৬৩ ভোট। এছাড়া ইন্ডিপেনডেন্ট প্রার্থী হিসেবে মাইকেল তলকিন পেয়েছেন ১০ হাজার ৭৬২ ভোট, বো ডাইটল পেয়েছেন ১০ হাজার ৫৯২ ভোট আর অ্যারোন কমি পেয়েছেন ২ হাজার ৬৩৫ ভোট।
অপরদিকে নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলের ৫১ আসনের মধ্যে ৪১টিতে বর্তমান পদাধিকারীগণ পুনরায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। বাকী ১০টি আসনে বর্তমান পদাধিকারীরা নির্বাচন করেননি না অথবা বাধ্যবাধকতার কারণে নির্বাচন থেকে সড়ে যেতে বাধ্য হন, অথবা স্বেচ্ছায় নির্বাচন থেকে সড়ে গিয়েছেন। ফলে হাতেগোনা কয়েকটি পদে মঙ্গলবারের নির্বাচনে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়। আর অন্যান্য পদে শুধুই নিয়ম রক্ষার নির্বাচন হয়।
মঙ্গলবারের নির্বাচনে মেয়র সহ সিটি প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ পদের প্রার্থীদের মধ্যে মেয়র বিল ডি ব¬াজিও, পাবলিক অ্যাডভোকেট লেটিটা জেমস, কম্পট্রোলার স্কট স্টিংগার এবং পাঁচ বোরোর প্রেসিডেন্ট যথাক্রমে কুইন্সের মিলিন্ডা কাটজ, ম্যানহাটনের গেইল ব্রেয়ার, স্ট্যাটেন আইল্যান্ডের জেমস ওডও, ব্রুকলীনের এরিখ অ্যাডামস এবং ব্রঙ্কসে রুবিন ডায়াজ পুননির্বাচন হয়েছেন। এই নির্বাচনে একমাত্র বাংলাদেশী-আমেরিকান প্রার্থী হিসেবে সিটির ডিস্ট্রক্ট-২৪ থেকে লড়েছেন বাংলাদেশী মোহাম্মদ টি রহমান।
ডিষ্ট্রিক্ট-২৪ আসনে জয়ী হয়েছেন বর্তমান কউিন্সিলম্যান ররি ল্যান্সম্যান। তার প্রাপ্ত ভোট ১২ হাজার ৮৯১ ভোট। ররি’র একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বি ছিলেন বাংলাদেশী-আমেরিকান টি রহমান। তার প্রাপ্ত ভোট ১ হাজার ৬৩৫ ভোট।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, মঙ্গলবার সকাল ছয়টা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত সিটির সকল ভোটেকেন্দ্রে টানা ভোটগ্রহণ চলে। ভোটদাতা কেবল তার নির্দিষ্ট কেন্দ্রেই ভোট দিতে পারেন। প্রতিবছরের মতো এবারও যাঁরা প্রথমবার ভোট দেন, তাঁদের জন্য ভোট কেন্দ্রে সাহায্যের জন্য একাধিক সাহায্যকারী ছিলেন। নিয়ম অনুযায়ী পেপার ব্যালটেই ভোট হয় এবং ব্যালট পেপারের নির্দিষ্ট স্থানটি বুথে রাখা বিশেষ কলম দিয়ে ভরে (গোল) দিয়ে ব্যালট পেপারটি স্ক্যান মেশিনে ঢুকিয়ে ভোট দিতে হবে। যারা ইংরেজী ভাষা জানেন না, বা ভালো করে ইরেজী বলতে পারেন না তাদের জন্য কেন্দ্রে সাহায্যকারী দোভাষী রাখা হয়।
জানা গেছে, নিউইয়র্ক সিটির মোট জনসংখ্যা ৮৬ লাখ। এরমধ্যে ভোটার হচ্ছেন ৫৫ লাখ। এই বিপুল ভোটারদের মধ্যে গড়ে ৫০% ভোটার ভোট দিয়ে থাকেন। সিটির ৫ বরোর মধ্যে সবেচেয়ে বেশী ভোটার হচ্ছেন ব্রুকলীনে বা কিংস কাউন্টিতে। এরপরে ক্রমাগতভাবে অবস্থান করছে কুইন্স, ব্রঙ্কস, ম্যানহাটান ও স্ট্যাাটান আইল্যান্ড বরো। মঙ্গলবারের নির্বাচনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন বিষয় হচ্ছে কনসটিটিউশনাল কনভেনশন বিষয়ক প্রপোজিশন।
এদিকে এবারের নির্বাচনে প্রার্থী বাছাইয়ের পাশাপাশি কনস্টিটিউশনাল কনভেনশন বিষয়ে ‘হ্যা’, ‘না’ ভোট দেয়ার সুযোগ ছিলো। এতে ‘না’ ভোট বেশী পড়ে বলে জানা গেছে।
পাঁচ বরো প্রেসিডেন্টই পুন: নির্বাচিত: নিউইয়র্ক সিটির স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ক্ষমতাসীন ডেমোক্র্যাট দলীয় মেয়র বিল ডি ব্লাজিও, সিটি কম্পট্রোলার স্কট স্ট্রীঙ্গার ও পাবলিক এডভোকেট ল্যাটিসিয়া জেমস’র পাশাপাশি সিটির পাঁচ বরো প্রেসিডেন্টই পুন: নির্বাচিত হয়েছেন। ডেমোক্র্যাট দলীয় নির্বাচিত বরো প্রেসিডেন্টরা হলেন: ব্রঙ্কস বরো- রুবীন দিয়াজ (জুনিয়র), ব্রুকলীন বরো- এরিক অ্যাডমস, ম্যানহাটান বরো- গালি ব্রিওয়ার, কুইন্স বরো- মেলিন্ডা কাটজ এবং রিপাবলিকান দলীয় স্ট্যাটান আইল্যান্ড বরোর প্রেসিডেন্ট জেমস ওডো। গত ৭ নভেম্বর মঙ্গলবার এই নির্বাচনে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।
নির্বাচনে ব্রঙ্কস বরো প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত রুবীন দিয়াজ (জুনিয়র)-এর প্রাপ্ত ভোট ১,১৯,৬০৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান (গ্র্যান্ড ওল্ড পার্টি-জিওপি) দলীয় প্রার্থী স্টেভেন ডিমার্টিস-এর প্রাপ্ত ভোট ৮,৯১৬। এই পদে প্রার্থী ছিলেন চারজন।
ব্রুকলীন বরো প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত এরিক অ্যাডমস-এর প্রাপ্ত ভোট ২,৬৫,৮৫৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান দলীয় প্রার্থী ভিটো ব্রুনো-এর প্রাপ্ত ভোট ৪৮,৭১০ ভোট। এই পদে প্রার্থী ছিলেন তিনজন।
ম্যানহাটান বরো প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত গালি ব্রিওয়ার-এর প্রাপ্ত ভোট ২,০১,৮৭৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান দলীয় প্রার্থী ফ্র্যাঙ্ক স্কেলা-এর প্রাপ্ত ভোট ২৮,৯৭৬ ভোট। এই পদে প্রার্থী ছিলেন চারজন।
কুইন্স বরো প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত মেলিন্ডা কাটজ-এর প্রাপ্ত ভোট ২,০১,৮৭৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান দলীয় প্রার্থী উইলিয়াম ক্রেগলার-এর প্রাপ্ত ভোট ৫৫,০৭৭ ভোট। এই পদে প্রার্থী ছিলেন তিনজন।

 

 

এ রকম আরো খবর

নিউজার্সীর পেটারসনে ‘বাংলাদেশ বুলেবার্ড’ নামে সড়ক হচ্ছে

বিশেষ প্রতিনিধি: যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশী অধ্যুষিত অন্যতম অঙ্গরাজ্য নিউজার্সীর পেটারসনে ‘বাংলাদেশবিস্তারিত

কবীর’স বেকারীর প্রতিষ্ঠাতা হুমায়ুন কবীর নেই

নিউইয়র্ক: যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশী মালিকানাধীন ব্যবসার প্রসারে অন্যতম সফল ও পুরোধাবিস্তারিত

মৌলভীবাজারে সৌহার্দ্য-সম্প্রীতির রাজনীতি বিরাজমান

বাংলা পত্রিকা রিপোর্ট: বিশিষ্ট রাজনীতিক, মৌলভীবাজার জেলা যুব লীগের সভাপতিবিস্তারিত

  • নিউইয়র্ক হামলা : বাংলাদেশী আকায়েদ দোষী সাব্যস্ত
  • নিউইয়র্কের ৯টি সাপ্তাহিকের সম্পাদক/প্রকাশকদের নিয়মিত বৈঠক অনুষ্ঠিত
  • ব্রাজিলে জাতীয়তাবাদী যুবদল-এর ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত
  • ৬ নভেম্বর মঙ্গলবার সারাদিন ভোট
  • ট্রাষ্টি বোর্ড থেকে আলী ইমামকে অব্যহতি : মিলনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ
  • ট্রাম্পের ইমিগ্রেশন বিরোধী আইনে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার আশ্বাস
  • আব্দুস শহীদ নিউইয়র্ক সিটির এনএবি ব্রঙ্কস-১০ এর ভাইস চেয়ার নির্বাচিত
  • বর্ণাঢ্য আয়োজনে নিউইয়র্কে ভাওয়াইয়া রজনী ‘ওকি গাড়ীয়াল ভাই’ অনুষ্ঠিত
  • এনএবিসি-২০১৯ সম্মেলন কমিটি  গঠিত
  • ‘শাহ নেওয়াজ-টুকু’ নেতৃত্তাধীন জেবিবিএ’র অভিষেকে মানুষের ঢল
  • বাংলাদেশ সোসাইটির মামলার পরবর্তী তারিখ ২৭ নভেম্বর
  • আলেক্সজান্দ্রিয়া কর্টেজের সমর্থনে সাউথ এশিয়ানদের সমাবেশ : টাইম টেলিভিশন-এর এন্ড্রোর্স
  • error: Content is protected !! Please don\'t try to copy.