র্সবশেষ শিরোনাম

শুক্রবার, আগস্ট ১৭, ২০১৮

বাংলা পত্রিকা

Main Menu

সপ্তাহের শুরুতে সম্পূর্ণ নতুন সংবাদ নিয়ে

নিউইয়র্কের ১০ মালিক-সম্পাদকের দ্বিতীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত

নিউইয়র্ক: তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক বাংলা সংবাদপত্রগুলো আজ এই প্রবাসে বাংলাদেশী কমিউনিটির উন্নয়নে যে ভূমিকা পালন করে আসছে, তাকে আরো সুসংহত করার লক্ষ্যে সবচেয়ে প্রাচীন ১০টি সংবাদপত্রের মালিক/সম্পাদকবৃন্দ দ্বিতীয়বারের মতো বৈঠকে বসেন গত ৮ জানুয়ারী সোমবার সন্ধ্যায় উডসাইডের গুলশান টেরাসে। বৈঠকে মালিক/সম্পাদকবৃন্দ প্রত্যেকে কমিউনিটি বিনির্মাণে বাংলা সংবাদপত্রগুলোর অবিসংবাদিক অবদানের কথা স্মরণ করেন। পাশাপাশি ভবিষ্যতে বাংলাদেশ কমিউনিটিকে এগিয়ে নিতে সংবাদপত্র আর কী ভূমিকা রাখতে পারে, সে বিষয়েও বক্তব্য দেন।
বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রকাশনার সময় অনুসারে সাপ্তাহিক ঠিকানার সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এম এম শাহীন, সাপ্তাহিক বাঙালীর সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, সাপ্তাহিক পরিচয় সম্পাদক নাজমুল আহসান, সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকার সম্পাদক আবু তাহের, সাপ্তাহিক বাংলাদেশ সম্পাদক ডা. এম ওয়াজেদ খান, সাপ্তাহিক জন্মভূমির সম্পাদক রতন তালুকদার, সাপ্তাহিক আজকালের প্রধান সম্পাদক জাকারিয়া মাসুদ জিকো, সাপ্তাহিক বর্ণমালা সম্পাদক মাহফুজুর রহমান ও সাপ্তাহিক প্রবাসের সম্পাদক মোহাম্মদ সাঈদ। সাপ্তাহিক দেশবাংলার সম্পাদক ডা. চৌধুরী সারোয়ারুল হাসান জরুরী কাজে ব্যস্ত থাকায় উপস্থিত হতে পারেননি।
সম্পাদকবৃন্দ প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করে বলেন, যারা দীর্ঘদিন ধরে বিপুল সংগ্রামের মধ্য দিয়ে নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও আজ পর্যন্ত প্রকাশনাকে অব্যাহত রেখেছেন, তাদের অটুট ঐক্যই যেমন সংবাদপত্রের প্রকাশনার যাত্রাপথকে নিষ্কন্টক করতে পারে, তেমনি এই ঐক্য কমিউনিটির সব ধরনের ভালো কাজকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করবে। তারা বলেন, সংবাদপত্রসমূহের নিরবচ্ছিন্ন প্রকাশনা যেমন কমিউনিটির উন্নয়নে ভূমিকা জোরদার করবে, তেমনি কমিউনিটির অগ্রগতিও সংবাদপত্রগুলোর প্রকাশনাকে সার্থক করে তুলবে।
মালিক/সম্পাদকবৃন্দ প্রায় ৩ দশক ধরে সংবাদপত্র প্রকাশনা অব্যাহত রেখে যারা শতাধিক ইমিগ্র্যান্টের কর্মসংস্থান করেছেন, পাঠক তৈরি করেছেন, বিজ্ঞাপনের বাজার পাঠক তৈরি করেছেন, বিজ্ঞাপনের বাজার সৃষ্টি করেছেন, কিন্তুু নানা কারণে আজ সেই বাজার নষ্ট হওয়ার লক্ষণ দেখা যাচ্ছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন এবং সংবাদপত্রসমূহের প্রকাশনায় ও সাংবাদিকতায় প্রফেশনালিজম বজায় রাখার ওপর জোর দেন।
সম্পাদকবৃন্দ বিজ্ঞাপনের মার্কেটকে নানা মাত্রায় সুসংহত করার ব্যাপারেও পরামর্শ রাখেন, সেই সঙ্গে নতুন বিজ্ঞাপন মার্কেটর আবিষ্কারের বিষয়েও আলোকপাত করা হয়। পরবর্তী সময়ে কমিউনিটির নেতৃবৃন্দকে নিয়ে কমিউনিটির সমস্যা সমাধানকল্পে টাউন হল মিটিংসহ অন্যান্য কর্মসূচি গ্রহণের ব্যাপারেও বৈঠকে আলোচনা হয়।
নিউইয়র্কের সবচেয়ে প্রাচীন ১০টি পত্রিকার সম্পাদকবৃন্দ আগামী মাসে একই জায়গায় তৃতীয় বৈঠকে মিলিত হবেন। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

এ রকম আরো খবর

জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনে জাতীয় শোক দিবস পালন

নিউইয়র্ক: যথাযোগ্য মর্যাদায় ও অত্যন্ত ভাবগম্ভীর পরিবেশে জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ীবিস্তারিত

কমিউনিটিকে মূলধারায় সম্পৃক্তকরণের প্রয়াস

বাংলা পত্রিকা রিপোর্ট: ব্রঙ্কসের বাংলাদেশী অধ্যুষিত পার্কচেষ্টার এলাকা থেকে নির্বাচিতবিস্তারিত

  • নিউইয়র্কে প্রবাসীদের তোপের মুখে ইমরান এইচ সরকার : লাঞ্ছিত
  • ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী : নিউইয়র্কে নানা কর্মসূচী গ্রহণ
  • নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের শোক প্রকাশ
  • ওয়াশিংটন ডিসিতে পিপলএনটেক’র আইটি জব সেমিনার অনুষ্ঠিত
  • আসামে জাতিগত নিধন বন্ধে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে আওয়াজ তুলতে হবে
  • এ্যাপস ভিত্তিক গাড়ির রেজিস্টেশন আগামী এক বছর বন্ধ ॥ ক্যাবীদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া : সিটিতে পার্কিং মিটার রেট ঘন্টায় সর্বোচ্চ ২ থেকে ৪ ডলার পর্যন্ত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত
  • বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এলামানাই এসোসিয়েশনের পিকনিক অনুষ্ঠিত
  • ১৯ আগষ্ট জ্যামাইকা মেলা : সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন
  • সাংবাদিকদের সাথে ড্রামা সার্কল’র মতবিনিময়
  • ঈদের আমেজে জ্যামাইকা মেলা ১৯ আগষ্ট রোববার
  • নিউইয়র্কে বিয়ানীবাজার পঞ্চখন্ড উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবার্ষিকী পালন : মেলবন্ধনের মহামেলায় একাত্ম হলেন সবাই
  • মতবিনিময় সভায় বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাহতাবুর রহমান নাছির : সবার সহযোগিতায় অচিরেই জালালাবাদ ভবন ক্রয় করবো
  • error: Content is protected !! Please don\'t try to copy.