র্সবশেষ শিরোনাম

বুধবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৮

বাংলা পত্রিকা

Main Menu

সপ্তাহের শুরুতে সম্পূর্ণ নতুন সংবাদ নিয়ে

পবিত্র হজ্ব পালনে নির্ভরশীল ও বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠান আরাফা ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস

বাংলা পত্রিকা রিপোর্ট: নিউইয়র্ক তথা উত্তর আমেরিকায় পবিত্র হজ্ব ছাড়াও ওমরাহ হজ্ব পালনের জন্য ‘হাজী সাহেবান’ ও মুসল্লীদের সার্বিকভাবে সহযোগিতার জন্য নির্ভরশীল ও বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠানের নাম ‘আরাফা ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস ইনক’। সৌদী হজ্ব মন্ত্রনালয় হতে লাইসেন্সপ্রাপ্ত এই প্রতিষ্ঠানটি ১৯৯৭ সাল থেকে হজ্ব কাফেলা পরিচালিত করে আসছে। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে পবিত্র হজ ও ওমরাহ পালন ইচ্ছুকদের জন্য রয়েছে বিশেষ প্যাকেজ অফার ‘আরাফা ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস ইনক’-এর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রেসিডেন্ট (খাদেম) হাজী মঈনুল ইসলাম নিজেই প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করে আসছেন।
হাজী মঈনুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন সৌদী আরবে প্রবাসী জীবন শেষে যুক্তরাষ্ট্র আসার পর নিউইয়র্কে বসবাস শুরু করি এবং ব্যবসার সাথে জড়িত হই। তিনি বলেন, ১৯৮০ সাল থেকে শুরু করে ১৯৮৯ সাল পর্যন্ত সৌদী আরবের মক্কায় অবস্থান করি। পরবর্তীতে ১৯৯০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে চলে আসি। মক্কায় অবস্থানকালে গ্রোসারী ব্যবসার আলোকে নিউইয়র্কেও গ্রোসারী ব্যবসার সাথে জড়িত হই। এই জ্যাকসন হাইটসে ‘ইত্যাদি গ্রোসারী’ প্রতিষ্ঠার (১৯৯৬-১৯৯৮) দুই বছর পর গ্রোসারী ব্যবসা ছেড়ে প্রতিষ্ঠা করি ‘আরাফা ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস ইনক’। মূলত: উত্তর আমেরিকায় বসবাসকারী প্রবাসী বাংলাদেশী মুসলমানদের পবিত্র হজ্ব পালনের কথা বিবেচনা করেই এই ট্যুর ব্যবসার সাথে জড়িত হই। তিনি বলেন, পরবর্তীতে মহান আল্লাহতায়ালাই ট্যুর ব্যবসায় নিয়ে আসেন।
‘আরাফা ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস ইনক’ সম্পর্কে হাজী মঈনুল ইসলাম বলেন, আমার জন্য বাংলা, আরবী ও উর্দুর পাশাপাশী ইংরেজী ভাষা জানা আর পবিত্র মক্কা-মদিনার পবিত্র স্থানগুলো সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা ও পরিচিতি থাকায় এব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের সাহায্য-সহযোগিতা করা সহজ হয়। তিনি বলেন, আমাদের হজ্ব কাফেলার বৈশিষ্ট্যের মধ্যে রয়েছে: মক্কা-মদিনায় ঐতিহাসিক স্থানসমূহ পরিদর্শন করানো, বাংলাদেশী, পাকিস্তানী এবং নর্থ আমেরিকার অভিজ্ঞ ও বিশিষ্ট ওলামাদের তত্বাবধানে হজের যাবতীয় কাজ সম্পাদন করা, সৌদী আরবে বসবাসরত বাংলাদেশী আলেম ও খাদেম হজ্ব পালনে সার্বিক সহায়তার জন্য সার্বক্ষনিক প্রস্তুত রাখা, প্রতিটি হোটেলে নাস্তা, দুপুরের খাবার এবং রাতের খাবারের ব্যবস্থা করা, মিনা এবং আরাফাতে হালকা খাবার পরিবেশন করা, শীততাপ নিয়ন্ত্রিত রুম ব্যবহার, এট্যাচড বাথরুম, ইন্টারকম টেলিফোন এবং প্রতিরুমে সর্বোচ্চ চার জন অবস্থানের ব্যবস্থা করা। এজন্য গ্রুপ ভিত্তিক বিশেষ অফার রয়েছে। এ (ডিলাক্স), বি (এক্সপ্রেস), সি ও ডি গ্রুপে হজ্ব/ওমরাহ পালনের জন্য রয়েছে বিভিন্ন অফার। এছাড়াও প্রতি গ্রুপের জন্য রয়েছে শীততাপ নিয়ন্ত্রিত বাসের ব্যবস্থা, উপমহদেশীয় খাবারের সুব্যবস্থা আর বিজ্ঞ আলেম দ্বারা বদলী হজ্বের সুযোগ। আরো রয়েছে কোরবানীর ব্যবস্থা। তিনি বলেন, শরীয়ত মোতাবেক পবিত্র হজ্ব পালনের জন্য সকল প্রকার সুযোগ-সুবিধাই রয়েছে ‘আরাফা ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস ইনক’-এ। আমাদের কমপ্লিট প্যাকেজের অফার হচ্ছে জনপ্রতি ৭,৮০০ ডলার (কোরবানী ও হজ্ব ফি সহ)।
হাজী মঈনুল ইসলাম বলেন, প্রতি বছরই হজ্ব মৌসুমের আগে সৌদী সরকার আইন-কানুন পরিবর্তন করে থাকে। যা আমরা সাথে সাথে আপগ্রেড থাকি। এজন্য সৌদী আরবে আমাদের নিজস্ব লিঙ্ক রয়েছে। আমরা ফরেন এজেন্ট হিসেবে সৌদী আরবের একজন মোয়াল্লিম-এর সাথে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছি। এছাড়াও সৌদী হজ্ব মন্ত্রনালয় তাদের মনোনীত ব্যক্তির সাথে ফরেন এজেন্টদের সাথে সমন্বয় সাধন করে থাকেন। তিনি বলেন, হজ্ব পালনকারীদের সুবিধার জন্য প্রতি বছর হজ্ব মৌসুমে দু’জন স্কলার (বাংলা/ইংরেজী) সাথে নিয়ে মক্কায় বসবাসরত বাংলাদেশী আলেমের সহযোগিতা নিয়ে থাকি।
হাজী মঈনুল ইসলাম বলেন, ‘আরাফা ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস ইনক’ প্রতিষ্ঠার পর থেকেই কোঠার ভিত্তিতে আমরা প্রতি বছর ৩১২ জন মুসলিম নর-নারীর জন্য হজ্ব পালনের ব্যবস্থা করে আসছি। প্রথমে আমাদের হাজীর সংখ্যা ছিলো ৩৫০ জন। ২০০১ সালের পর থেকে নতুন করে আর কোঠা দেয়া হয়নি। তিনি বলেই পবিত্র হজ্ব পালনের জন্য ‘আরাফা ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস ইনক’-ই প্রথম প্রতিষ্ঠান যারা সৌদী সরকারের হজ্ব মন্ত্রনালয়ের এজেন্ট হিসেবে কাজ করে আসছে। আমাদের রয়েছে ‘হাজী সাহেবানদের জন্য দিক নির্দেশনা’ বুক। যা বাংলায় লিখা।
পবিত্র হজ্ব পালনের সময় নানা অভিযোগ ও প্রতারণা সম্পর্কে হাজী মঈনুল ইসলাম বলেন, এব্যাপারে এজেন্ট ও হজ্বপালনকারী সংশ্লিস্ট সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। কেউ যেনো ধোঁকা দিতে না পারে বা প্রতারণার শিকার না হন তার জন্য আইন-কানুন জানতে হবে। প্রয়োজনে সৌদী সরকারের হজ্ব মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে খোঁজ নিতে হবে। হজ্ব করার ক্ষেত্রে সৌদী সরকারের আইন-কানুন আপগ্রেড থাকতে হবে। আর নির্ভরশীল ও বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতা নিতে হবে।

এ রকম আরো খবর

এবিবিএ’র নতুন সংগঠনিক কমিটি গঠিত

নিউইয়র্ক: নিউইয়র্ক তথা যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের সংগঠন ‘আমেরিকান-বাংলাদেশী বিজনেস অ্যালায়েন্স-এবিবিএ’রবিস্তারিত

নাসাউ কলিসিয়ামে অনুষ্ঠিতব্য ফোবানাই আসল ফোবানা

নিউইয়র্ক: আগামী বছর যুক্তরাষ্ট্রের লেবার যে উইকেন্ডে বিশ্বের রাজধানী খ্যাতবিস্তারিত

  • ফোবানা’র ‘ট্রেড মার্ক’ কারো ব্যক্তিগত সম্পত্তি নয়
  • ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ আন্দোলন বিশ্বব্যাপী জোরদার করতে হবে
  • সাংবাদিক মামুনের ছোট্ট কন্যার মৃত্যুতে নিউইয়র্ক প্রেসক্লাবের শোক
  • নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ মমিন মজুমদারের মাতৃবিয়োগ
  • নিউইয়র্কে বিপুল উৎসাহে থ্যাংকস গিভিং ডে পালিত : টাইম টিভি ও বাংলা পত্রিকায় ব্যতিক্রমী আয়োজন
  • বাংলাদেশ সোসাইটির মামলার নতুন তারিখ ৮ জানুয়ারী
  • এস্টোরিয়ায় প্রতিবাদ সভা ২ ডিসেম্বর
  • তৈয়বুর রহমান টনির ভ্রাতৃবিয়োগ
  • এনওয়াইপিডিতে বাংলাদেশী অফিসারদের প্রশংসা
  • বুধবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী
  • যেকোন মূল্যে সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনই কাম্য
  • এস্টোরিয়ায় বাংলাদেশী গ্রোসারীতে ডাকাতি ॥ একজন গুলিবিদ্ধ
  • error: Content is protected !! Please don\'t try to copy.