র্সবশেষ শিরোনাম

মঙ্গলবার, জুলাই ১৬, ২০১৯

বাংলা পত্রিকা

Main Menu

সপ্তাহের শুরুতে সম্পূর্ণ নতুন সংবাদ নিয়ে

সেনেগালের বিদায়॥ কলম্বিয়া গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন

বাংলা পত্রিকা ডেস্ক: কত ছোট বিষয়ও বড় হয়ে যেতে পারে তার টের পেল সেনেগাল। সাধারণত পয়েন্টের হিসেবে নির্ধারিত হয় পরবর্তী গ্রুপ পর্ব থেকে পরবর্তী রাউন্ডে যাওয়ার সমীকরণ। সেটা সমান হলে গোল ব্যবধান নির্ধারিত হয়। গোল ব্যবধানও যদি সমান হয় তবে কি হবে? সেক্ষেত্রে ক্রিকেটে হয় মুখোমুখি লড়াইয়ে কে জিতেছিল! সেখানেও দুই দলের মধ্যকার ম্যাচ ড্র হয়েছিল ২-২ ব্যবধানে। তবে সমীকরণটা নির্ধারিত হয়েছে এবার অন্যভাবে। সেটা হয়তো অনেকেই এতোদিন জানতেন না। গ্রুপ পর্বে তুলনামূলক বেশি হলুদ কার্ড খাওয়ার হিসেবে। ফেয়ার প্লে’র একটি প্যারামিটার হিসেবে দেখা হয়েছে হলুদ কার্ডকে। যেখানে গ্রুপ পর্বে সেনেগাল হলুদ কার্ড পেয়েছে ছয়টি, আর জাপান পেয়েছে চারটি। এই হিসেবে এগিয়ে থেকে শেষ পর্যন্ত জাপান চলে গেছে শেষ ষোলোতে। আর সেনেগালকে ধরতে হলো বাড়ির পথ।
পোল্যান্ডের বিপক্ষে উড়ন্ত জয়ে গোলের সূচনা করেন কলম্বিয়ার বার্সেলোনা ডিফেন্ডার ডিফেন্ডার ইয়েরে মিনা। সেনেগালের বিপক্ষে ৭৪ মিনিটে জয়সূচক একমাত্র গোলটি আসে তার কাছ থেকেই। মিনার গোলটিই ম্যাচের পার্থক্য গড়ে দেয়। প্রথমার্ধের দুইদলের কেউই গোলের দেখা পাননি। বল পজিশনে কলম্বিয়া এগিয়ে থাকলেও ভালো আক্রমণ করে সেনেগাল। তাদের চারটি শটের মধ্যে দুইটি ছিল গোলমুখে। সেনেগালের ডিফেন্সের সামনে মাত্র একবার গোলে শট নিতে পারেন রাদামেল ফ্যালকাওরা। ইনজুরিতে পড়ে ৩২ মিনিটে মাঠ ছাড়েন কলম্বিয়ান তারকা হামেস রদ্রিগেজ।
বৃহস্পতিবার (২৮ জুন) অনুষ্ঠিত এইচ গ্রুপের দুটি ম্যাচের মধ্যে একটিতে সেনেগাল কলম্বিয়ার কাছে হেরে যায় ১-০ গোলে। কলম্বিয়ার পক্ষে ৭৪ মিনিটে জয়সূচক একমাত্র গোল করেন ইয়েরি মিনা। দুই ম্যাচ জিতে ৬ পয়েন্ট নিয়ে কলম্বিয়া হয়েছে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন।
অপর ম্যাচে পোল্যান্ড ১-০ গোলে হারায় জাপানকে। পোল্যান্ডের আগে কোনও পয়েন্ট না থাকায় বিদায় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল আগেই। তবে বিপত্তি ঘটে সেনেগাল ও জাপানকে নিয়ে। দুটি দলেরই পয়েন্ট সমান চার করে, গোল ব্যবধানও সমান। তাই সমীকরণটা নির্ধারিত হলো ফেয়ার প্লেতে। যেখানে জাপানের চেয়ে দুটি হলুদ কার্ড বেশি দেখায় বিদায় নিতে হলো সেনেগালকে। এর ফলে এশিয়ার একমাত্র প্রতিনিধি হিসেবে শেষ ষোলোতে টিকে রইল জাপান। অপরদিকে সেনেগালের বাদ পড়ার মধ্য দিয়ে আফ্রিকার কোনও প্রতিনিধিত্ব থাকল না নকআউট পর্বে।
এর আগে একবারই মুখোমুখি হয় সেনেগাল ও কলম্বিয়া। ২০১৪ বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচে কলম্বিয়ার বিপক্ষে দুই গোলে পিছিয়ে থেকে ২-২ সমতায় খেলা শেষ করে সেনেগাল। আফ্রিকার দেশ সেনেগালের এটি দ্বিতীয় বিশ্বকাপ। ২০০২ বিশ্বকাপ অভিষেকেই কোয়ার্টার ফাইনাল খেলে বাজিমাত করেছিল তারা। ষষ্ঠ বিশ্বকাপ খেলা কলম্বিয়ার সেরা সাফল্য ২০১৪ আসরের কোয়ার্টার ফাইনাল।

এ রকম আরো খবর

  • লর্ডসে অবসর নিচ্ছেন না মাশরাফি
  • যুব সংঘের (বি) পূর্ণ পয়েন্ট লাভ 
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ’র বিরুদ্ধে অনবদ্য ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের জয়
  • দুর্বল আফগানিস্তানের বিপক্ষে ভারত ১১ রানে জয়ী : সামির হ্যাটট্রিক
  • বাংলাদেশ স্পোর্টস কাউন্সিল অব আমেরিকা আয়োজিত নিউইয়র্ক ফুটবল লীগ শুরু
  • নিউইয়র্ক ফুটবল লীগ শুরু ১৬ জুন
  • বাঘের গর্জনে প্রকম্পিত বিশ্বকাপ ॥ বাংলাদেশের কাছে দক্ষিণ আফ্রিকা ২১ রানে পরাজিত
  • বিশ্বকাপে বাংলাদেশের রেকর্ড
  • প্রতীক্ষা শেষে স্বপ্নের শিরোপা জয়
  • স্বাধীনতা কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে ব্রঙ্কস ইউনাইটেড চ্যাম্পিয়ন যুব সংঘ রানার্স আপ
  • বিশ্বকাপের আর বাকি ১০০ দিন
  • সিলেট সুলতান্স’র শিরোপা জয় ॥ ঢাকা স্বরপিয়ন্স রানার্স আপ
  • error: Content is protected !! Please don\'t try to copy.