র্সবশেষ শিরোনাম

বুধবার, জানুয়ারি ২৩, ২০১৯

বাংলা পত্রিকা

Main Menu

সপ্তাহের শুরুতে সম্পূর্ণ নতুন সংবাদ নিয়ে

আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের নৌ-ভ্রমণ

‘বাংলাদেশ সোসাইটি হোক সকলের মিলনকেন্দ্র’

নিউইয়র্ক: আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের পঞ্চম নৌ-ভ্রমণ অনুষ্ঠিত হয়েছে গত ১৪ জুলাই। নিউইয়র্কের মিডিয়া ও সংস্কৃতি কর্মী, কমিউনিটি নেতা, রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী-সুধীজন এই নৌ-ভ্রমণে অংশ নিয়েছিলেন। নৌ-ভ্রমণে ছিল আলোচনা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। আলোচনার বিষয় ছিল ‘বাংলাদেশ সোসাইটির নেতৃত্ব কেমন চাই’। এই বিষয়ে ওপর আলোচনা করতে গিয়ে একাধিক বক্তা নেতৃত্ব সৃষ্টির নেপথ্য কারণ নিয়ে বক্তব্য ও পাল্টা বক্তব্য রাখেন। সভায় অধিকাংশ বক্তা বলেন, নিউইয়র্ক প্রবাসী বাংলাদেশীদের আমব্রেলা সংগঠন-বাংলাদেশ সোসাইটি হোক সকলের মিলনকেন্দ্র। এ ছাড়া প্রবাসীদর মধ্যে ঐক্য, সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য রচনায় সোসাইটির নেতারা যেন অভিভাবকের ভূমিকা পালন করেন। বক্তারা কমিউনিটির স্বার্থে বাংলাদেশ সোসাইটির আসন্ন নির্বাচনে যোগ্য প্রার্থীদের নির্বাচিত করার দাবীও জানান।
আলোচনা সভা পরিচালনা করেন আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি দর্পণ কবীর এবং স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক শওকত ওসমান রচি ও রিভার ক্রুজ আয়োজন কমিটির আহবায়ক বেলাল আহমেদ। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন সামসুন্নাহার নিম্মি। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সাপ্তাহিক পরিচয় সম্পাদক নাজমুল আহসান, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মুকিত চৌধুরী, বাংলাদেশ সোসাইটির আসন্ন নির্বাচনে সভাপতি পদপ্রার্থী কাজী আশরাফ হোসেন নয়ন ও সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী মোহাম্মদ আলী, টাইম টেলিভিশন-এর সিইও ও সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা সম্পাদক আবু তাহের, এনওয়াই ইন্স্যুরেন্সের সিইও এবং প্রেসিডেন্ট শাহ নেওয়াজ, সাপ্তাহিক প্রবাস সম্পাদক মোহাম্মদ সাঈদ, ব্যবসায়ী ও রাজনীতিক পারভেজ সাজ্জাদ, কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট আসাদুল বারী আসাদ, নারায়ণগঞ্জ জেলা সমিতির সভাপতি অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
আলোচনা সভার পর মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন তনিমা হাদী, রোকসনা মির্জা, রানো নেওয়াজ ও সজীব। কী-বোর্ডে ছিলেন পার্থ, গীটারে মাহফুজ ও অক্টোপ্যাডে রিচার্ড।
আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মুকিত চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন না হলে আমরা এতো বাংলাদেশী যুক্তরাষ্ট্রে আসতে পারতাম না। দেশের কথা সকলকে স্মরণে রাখতে হবে। বাংলাদেশে পক্ষে থাকতে হবে। যারা বাংলাদেশ সোসাইটির নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছেন, তারা যেন নতুন প্রজন্মকে বাঙালী সংস্কৃতি ও কৃষ্টির চর্চা অব্যাগত রাখার এবং প্রত্যেক পরিবারে ছড়িয়ে দিতে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করেন।
নাজমুল আহসান বলেন, সোসাইটির সদস্য বাড়ছে। এই সংগঠনের নেতৃত্ব বিকাশে সদস্য বা ভোটারদের সচেতন হতে হবে। ভোটাররা সচেতন হলে যোগ্য নেতৃত্বও তৈরি হবে।
আবু তাহের বলেন, বাংলাদেশে সোসাইটির নেতৃত্বে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। তিনি আরো বলেন, নির্বাচন এলে প্রার্থীরা অনেক কথাই বলেন। প্রতিশ্রুতি দেন। ভোটারদের ভাবতে হবে কোন প্রার্থী প্রতিশ্রুতি রক্ষা করবেন। তিনি সঠিক ও যোগ্য নেতৃত্ব সৃষ্টিতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার কথাও বলেন।
বাংলাদেশ সোসাইটির নেতৃত্ব কেমন চাই-এ প্রসঙ্গে আলোকপাত করতে গিয়ে নিজের প্যানেলের পক্ষে কাজী আশরাফ হোসেন নয়ন বলেন, শুধু কথার পতিশ্রুতি নয়, আমরা প্রতিশ্রুতি রক্ষা করবো। বাংলাদেশ সোসাইটিকে আরো বড় পরিসরে দেখতে চাই। এবার রেকর্ডসংখ্যক ভোটার নিবন্ধিত হয়েছে। এর অর্থ সোসাইটির প্রতি প্রবাসীদের আগ্রহ বাড়ছে। তিনি আরো বলেন, তিনি নির্বাচিত হলে বাংলাদেশ সোসাইটিতে ২৪ ঘন্টা খোলা এমন একটি ডেস্ক খুলবেন। এই ডেস্ক খোলা হবে অবৈধ অভিবাসীদের জন্য। বিপদগ্রস্থ অভিবাসীদের পাশে দাঁড়াতে আমরা এই পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। তিনি আরো বলেন, আমরা বাংলাদেশ ভবন ক্রয় করতে চাই। এ ছাড়া মার্কিন মুলধারার সঙ্গে একটি সম্পর্ক তৈরি করার উদ্যোগ গ্রহণ করবো আমরা। মূলধারার বিভিন্ন উৎস থেকে অনুদান সংগ্রহ করার উদ্যোগ গ্রহণ করার কথাও বলেন তিনি।
পারভেজ সাজ্জাদ বলেন, বাংলাদেশ সোসাইটি নেতৃত্ব সম্পর্কে ভোটারদের প্রতি হুশিয়ার উচ্চারণ করে বলেন, অযোগ্য ব্যক্তিরা কাড়ি কাড়ি টাকা খরচ করে ভোটার বানাচ্ছে। এতে কেউ ভাববেন না নির্বাচনে জয়ী হয়ে যাবেন। তিনি আরো বলেন, অযোগ্য নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশ সোসাইটিতে অনেক যোগ্য ব্যক্তি আসতে চান না। একটি গোষ্ঠী সোসাইটিকে কুক্ষিগত করে রাখতে চায়।
আসাদুল বারী আসাদ বলেন, নিজে অর্থ খরচ করে প্রার্থীরা ভোটার বানাচ্ছে, এর পরিবর্তন আনতে হবে। নিজের অর্থে ভোটার হবেন-এদের সংখ্যা বাড়াতে হবে। তিনি আরো বলেন, যুক্তরাষ্ট্র অনেক বড় দেশ, অনেক সম্ভাবনার দেশ। সকলে ঐক্যবদ্ধ থাকলে একটি সুন্দর কমিউনিটি গড়া সম্ভব। বাংলাদেশ সোসাইটিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।
শাহ নেওয়াজ বলেন, আসুন সকলে মিলে সুন্দর কমিউনিটি গড়ি। ঐক্যবদ্ধ থাকি। এই প্রবাসে নতুন প্রজন্মের জন্য কিছু শিক্ষনীয়ন উদ্যোগ গ্রহণ করি।
মোহাম্মদ আলী বলেন, আমরা নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে শুধু কথার ফুলঝুড়ি ছড়াতে চাই না। ফটোসেশন করে সময় কাটাতে চাই না। আমরা কাজ করতে চাই। এই সোসাইটিকে আরো অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। বাংলাদেশ সোসাইটির নেতৃত্ব যারা দিয়ে এসেছেন, তাঁদের অবদানের কথা স্মরণে রাখতে হবে। অভিজ্ঞতার মূল্য আছে। আবার নতুন প্রজন্মকে সোসাইটির কর্মকান্ড এবং নেতৃত্বে সম্পৃক্ত করতে হবে। সকলে ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় আমরা বাংলাদেশ সোসাইটিকে মিলনকেন্দ্র বানাতে চাই। দল-মত-পথ যার যেমন থাকুক সোসাইটি সকলের। আসুন, আমরা একে-অন্যের পাশে দাঁড়াই। বিপদগ্রস্থ অভিবাসীদের জন্য সম্মিলিতভাবে উদ্যোগ গ্রহণ করি।
অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বলেন, সোসাইটির ভোটারদের উচিত যোগ্য প্রার্থীদের ভোট দেয়া। যে কোন প্যানেলের প্রার্থী হোক, প্রার্থী যোগ্য হলে তাকে নির্বাচিত করা একজন সচেতন ভোটারের দায়িত্ব। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ সোসাইটি আরো গতিশীল করতে যোগ্য নেতৃত্ব সৃষ্টি করা অন্যতম কাজ-এটা আমাদের মনে রাখতে হবে।
নৌ-ভ্রমণের সবশেষে ছিল বিনা মূল্যে র‌্যাফেল ড্র। লটারীতে ভাগ্যবান হিসাবে ৫৫ ইঞ্চি টিভি পেয়েছেন আব্দুল মান্নান। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

এ রকম আরো খবর

‘বেঙ্গল ডেমোক্রেটিক ক্লাব’র শুভযাত্রা

নিউইয়র্ক: গত ১৮ জানুয়ারী, শুক্রবার আমেরিকায় বাংলাভাষী তথা দক্ষিণ এশিয়ানদেরবিস্তারিত

ওয়াশিংটনে হৃদয় খানের সঙ্গে মঞ্চ মাতালেন সায়েরা

জাহিদ রহমান, ওয়াশিংটন ডিসিঃ বাংলাদেশের জনপ্রিয় শিল্পী হৃদয় খানের সঙ্গেবিস্তারিত

  • বাংলাদেশে পুন:নির্বাচনের দাবীতে জাতিসংঘের সামনে বিক্ষোভ-সমাবেশ
  • কমিউনিটি সংগঠক এখলাস উদ্দিন আহমেদের ইন্তেকাল
  • ওজনপার্কে হালাল দেশী বাজার সুপার মার্কেটের উদ্বোধন
  • নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের শোক প্রকাশ
  • সাংবাদিক গোলাম মল্লিকের জানাজা অনুষ্ঠিত ॥ দাফন সম্পন্ন
  • সাংবাদিক গোলাম মল্লিকের ইন্তেকাল
  • প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসী’র নেতা আক্কাস আলী খানের মাতৃবিয়োগ
  • সাংবাদিক মাহাথির ফারুকীর মাতৃবিয়োগ
  • বাংলাদেশের বিজয় দিবস উদযাপন
  • যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত
  • নর্থ ক্যারোলিনায় সিরাহ কনফারেন্স ৫ জানুয়ারী
  • যুক্তরাষ্ট্র আ. লীগের গভীর শোক প্রকাশ : আজ সন্ধ্যায় দোয়া মাহফিল
  • error: Content is protected !! Please don\'t try to copy.