র্সবশেষ শিরোনাম

রবিবার, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৮

বাংলা পত্রিকা

Main Menu

সপ্তাহের শুরুতে সম্পূর্ণ নতুন সংবাদ নিয়ে

অবৈধ উপায়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশকালে ৬ বাংলাদেশী গ্রেফতার

বাংলা পত্রিকা ডেস্ক: মেক্সিকোর সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস সীমান্ত দিয়ে অবৈধ উপায়ে যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার সময় গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৬ বাংলাদেশীকে। ইদানীং এ উপায়ে বাংলাদেশীদের যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার প্রবণতা বৃদ্ধি পেয়েছে। কোনো কোন ক্ষেত্রে তা বৃদ্ধি পেয়েছে ২৭০ শতাংশ। এক বছরে এভাবে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করার সময় গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৬৬৮ বাংলাদেশীকে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ব্রেইতবার্ত। খবরে বলা হয়েছে, শনিবার (১৭ নভেম্বর) রাতে ও পরদিন সকালে ১২ ঘন্টার অভিযানে দুটি আলাদা অপারেশনে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ওই ৬ বাংলাদেশীকে। তারা এ সময় মেক্সিকোর সঙ্গে টেক্সাস সীমান্ত দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের চেষ্টা করছিল। লারেডো সেক্টর বর্ডার প্যাট্রোল এজেন্টরা এ মাসে এ উপায়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের চেষ্টাকালে কমপক্ষে ৭৫ জন বাংলাদেশীকে আটক করার কথা জানিয়েছে।
২০১৭ সালের অক্টোবরের তুলনায় এ বছরের অক্টোবরে এ সংখ্যা শতকরা ১০ ভাগ বেশি। ৩০ শে সেপ্টেম্বর সেখানে ২০১৮ অর্থবছর শেষ হয়েছে। এ সময়ে লারেডো সেক্টর এজেন্টরা ৬৬৮ বাংলাদেশী অভিবাসীকে আটক করেছে। আগের বছরের মোট বাংলাদেশী অবৈধ অভিবাসীর তুলনায় এ সংখ্যা শতকরা প্রায় ২৭০ ভাগ বেশি।
ব্রেইতবার্তের রিপোর্টে বলা হয়েছে, দক্ষিণ ও মধ্য টেক্সাসের সীমান্তে রয়েছে উন্মুক্ত নদী। সেই সীমান্ত একেবারে খোলা। এমন সীমান্ত শত শত মাইলের। এই পথটিকে ব্যবহার করছে অবৈধ অভিবাসীরা। এ পথে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের জন্য অভিবাসীরা দালালদের দিচ্ছে প্রতিজন ২৭ হাজার ডলার করে।
লারেডো সাউথ বর্ডার পেট্রোল স্টেশনে যে এজেন্টদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে তারা শনিবার টেক্সাসের মাস্টারসন রোডে সন্দেহজনকভাবে চার অভিবাসীর কাছে যায়। এ সময় লারেডো সেক্টর লাইন অপারেশনের অংশ হিসেবে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এ সময় বেরিয়ে আসে যে, ওই চার যুবক হলেন বাংলাদেশী। পরেরদিন সকালে একই সংস্থা আরও একটি অভিযান চালায়। লারেডোর ওলিয়ান্দার স্ট্রিটে তারা দেখতে পায় দু’জন সন্দেহজনক যুবক হাঁটাহাঁটি করছে। তারা তাদের কাছে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে। তাতেও বেরিয়ে আসে যে, তারাও বাংলাদেশী। তাদেরকে যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানো হচ্ছে পাচার করে।
ওদিকে সোমবার বিকেলে যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বলেছে, সানডিয়েগো ক্রসিংয়ে অভিবাসীদের একটি দল সমবেত হয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে ৫ শতাধিক অপরাধী। তারা যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারে। এই দলে রয়েছে প্রাপ্ত বয়স্ক অথবা টিনেজ বালক। এ ঘটনাকে আগ্রাসন হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন তিজুয়ানার বাসিন্দা লুইস অ্যালেক্সিজ মেন্দোজা (৩০)।

এ রকম আরো খবর

জর্জ বুশ সিনিয়র মারা গেছেন

বাংলা পত্রিকা ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ এইচডব্লিউ বুশ সিনিয়রবিস্তারিত

নিউইয়র্ক ষ্টেট সিনেটর হোজে পেরাল্টার পরলোকগমন

বাংলা পত্রিকা ডেস্ক: নিউইয়র্ক ষ্টেট সিনেটর হোজে পেরাল্টা পরলোকগমন করেছেন।বিস্তারিত

  • নিউইয়র্ক টাইমসে অধ্যাপক খালেদ ফাদেলের কলাম ॥ ইমামদের দিয়ে গাওয়ানো হচ্ছে রাজতন্ত্রের গান : মক্কা-মদিনাকে অপব্যবহার করছে রাজপরিবার
  • বিএনপির পাশে চীন, অভিযোগ হাসিনার দলের
  • বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের হস্তক্ষেপ কামনা
  • ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সিএনএনের মামলা : ‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চাকরিচ্যুত হতে পারেন’
  • ক্যালিফোর্নিয়ায় ভয়াবহ দাবানলে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫০
  • ক্যালিফোর্নিয়ায় দাবানলে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩১
  • যে কারণে মার্কিন মধ্যবর্তী নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ
  • কারাগার থেকে ছাড়া পেলেন আসিয়া বিবি
  • ‘ইতিহাস গড়তে আসিনি, আমরা পরিবর্তনের জন্য এসেছি’
  • ‘আমিই ইউএস কংগ্রেসে প্রথম হিজাবধারী মুসলিম নারী’
  • ট্রাম্পের সামনে অনেক বাধা আছে অভিশংসনের ভয়ও
  • error: Content is protected !! Please don\'t try to copy.