র্সবশেষ শিরোনাম

মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০১৯

বাংলা পত্রিকা

Main Menu

সপ্তাহের শুরুতে সম্পূর্ণ নতুন সংবাদ নিয়ে

ড. সিদ্দিক ফিরছেন কবে?

নারী আসনে মনোনয়ন চান মোমতাজ-ফরিদা

বাংলা পত্রিকা রিপোর্ট: সদ্য অনুষ্ঠিত বাংলাদেশের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ সহ দলের সর্বস্তরের শতাধিক নেতা-কর্মী বাংলাদেশে গমন করেন। গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট ভূমিধ্বস বিজয় অর্জন করে। নির্বাচনে দলীয় নেতা-কর্মীরা দল ও নিজ নিজ এলাকার দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে প্রচারণায় অংশ নেন এবং নির্বাচন শেষে তারা যুক্তরাষ্ট্র ফিরে আসতে শুরু করেছেন।এদিকে যুক্তরাষ্ট্র মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোমতাজ শাহনাজ ও সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমীন সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন।
দলীয় সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচন শেষে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ সহ অনেকেই ফিলে আসলেও সভাপতি সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান কবে আসবেন তার সঠিক দিন-তালিখ এখনো কেউ জানেন না। তবে দলের একাধিক নেতা-কর্মীর প্রশ্ন সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান কবে ফিরছেন? উল্লেখ্য, সভাপতির অনুপস্থিতিতে দলের অন্যতম সহ সভাপতি মাহবুবুর রহমান ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছেন।
সূত্র মতে, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা মনে করছেন মূলত: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ড. সিদ্দিকুর রহমান নিজ জেলা বগুড়ার একটি আসন থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। কিন্তু দলের মনোনয়ন না পেয়ে তিনি দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেন। সূত্র জানায়, ড. সিদ্দিকুর রহমান চাচ্ছেন একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে তার স্ত্রী শাহানারা রহমান দলীয় মনোননয়ন পান। এজন্যই নাকি তিনি বাংলাদেশে অবস্থান করছেন। তবে দলের দায়িত্বশীল সূত্রগুলো এব্যাপারে অবহিত নন বলে জানা গেছে। রোববার ঢাকায় ড. সিদ্দিকুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।
শাহানারা রহমান

এব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাজী এনাম বলেন, ড. সিদ্দিকুর রহমান দলের পরিক্ষীত নেতা। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগকে যোগ্যতার সাথে নেতৃত্ব দেয়ার পাশাপাশি বাংলাদেশের দলের জন্য কাজ করে চলেছেন। আমরা ভেবেছিলাম তিনি গত নির্বাচনে দলের মনোনয়ন পাবেন। কিন্তু তা হয়নি। এখন যদি তার স্ত্রী শাহানারা রহমান সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন পান তাহলে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা খুশইি হবে। এতে প্রবাসীরা সম্মানিত হবেন।কেননা, সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সাথে তার স্ত্রী সর্বদাই স্বামীর পাশে থেকে দলের জন্য কাজ করে চলেছেন। উল্লেখ্য, শাহানারা রহমান যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরী পরিষদের প্রথম সদস্য।
এদিকে বার্তা সংস্থা ইউএনএ জানায়, সদ্য অনুষ্ঠিত বাংলাদেশের একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে প্রবাস থেকে দু’জন মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন বলে জানা গেছে। প্রার্থীদ্বয় হলে যুক্তরাষ্ট্র মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোমতাজ শাহনাজ ও সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমীন। ইতিমধ্যেই মোমতাজ শাহনাজ ও ফরিদা ইয়ামীনের পক্ষ থেকে মনোনয়ন ক্রয় এবং আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডে সংশ্লিষ্টদের জীবন বৃত্তান্ত প্রেরণ করা হয়েছে বলে। খবর ইউএনএ’র।
জানা গেছে, নিউইয়র্ক প্রবাসী মোমতাজ শাহনাজ মাগুরার সন্তান হলেও তার স্থায়ী ঠিকানা নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার বাবরা (শরীফ বাড়ী)। তার পিতার নাম মোহাম্মদ আব্দুল জব্বার মোল্লা আর মাতার নাম হালিমা খাতুন। বিএ অনার্স এমএ (দর্শন) ডিগ্রীধারী মোমতাজ শাহনাজ এলএলবি ডিগ্রী ছাড়াও ১৬তম বিসিএস (শিক্ষা) পরীক্ষা সম্পন্ন করে প্রবাস জীবনের আগে কিছুদিন খুলনার সরকারী বিএল কলেজে দর্শন বিভাগে শিক্ষকতা করেন। ২০০১ সালে এক মাসে তিনবার বদলি আর জীবনের ঝুঁকি থাকায় তিনি উচ্চ শিক্ষার জন্য যুক্তরাষ্ট্র আগমণ করেন এবং পরবর্তীতে নিউইয়র্কে স্থায়ী বসবাস গড়ে তোলেন।
ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতির সাথে জড়িত মোমতাজ শাহনাজ ২০০৭ সালের ৭ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্র মহিলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মনোনীত হন এবং ২০১২ সাল থেকে মহিলা লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।
মোমতাজ শাহনাজ ও ফরিদা ইয়াসমীন

অপরদিকে ফরিদা ইয়াসমীন বাংলাদেশের নেত্রকোনার সন্তান। তিনি দীর্ঘদিন ধরে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত এবং বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। নিউইয়র্কে বসবাসকারী ফরিদা ইয়াসমীন নারী ও শিশুদের উন্নয়ন ছাড়াও তরুণদের জন্য ঊসঢ়ড়ববিৎসবহঃ ঝউএ-৩,৫,৪,১০ এড়ধষ বাস্তবায়নে বিগত ১০ বছর ধরে জাতিসংঘের বিভিন্ন এনজিও প্রজেক্ট এবং মিডিয়ার সাথে করে যাচ্ছেন। ইতিপূর্বে বাংলাদেশ কেয়ার-এ ১৫ বছর কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে তার।
ফরিদা ইয়াসমীন ইউএনএ প্রতিনিধির সাথে আলাপকালে বলেন, আমার বিশ্বাস আমাদের মমতাময়ী মা ও দেশরতœ, ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা, প্রধানমন্ত্রী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনাও সব সময় নারী ও শিশুদের উন্নয়নে নিরলস কাজ করে চলেছেন। আমিও আগামী দিনে বাংলাদেশের মানুষেরর জন্য আরো ভালো কাজ করার সুযোগ প্রত্যাশী। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি আমাকে যোগ্য মনে করেন, তবে আমিও দায়িত্ব নিয়ে কাজ করতে চাই। এজন্যই আমি একাদশ জাতীয় সংসদের নারী আসনের একজন মনোনয়ন প্রত্যাশী।

এ রকম আরো খবর

  • জ্যাকসন হাইটসে ‘টাইম টেলিভিশন বৈশাখী মেলা’ ১৩-১৪ এপ্রিল : প্রধান শিল্পী ফেরদৌস আরা
  • নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভা অনুষ্ঠিত
  • প্রবাসীদের প্রত্যাশা পূরণে সবার প্রার্থনা কামনা
  • ফারাক্কা ইস্যুতে বাংলাদেশ সরকারকে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের দাবী
  • কমিউনিটি বোর্ড মেম্বার হলেন শাহ নেওয়াজ
  • ১ এপ্রিল ২০১৯ সংখ্যা
  • ফারাক্কা কমিটির সভা ৬ এপ্রিল শনিবার
  • ‘ইনফিনিটি অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন বাংলাদেশের শহীদুল আলম
  • শেরওয়ান আহমেদ চৌধুরী আর নেই
  • আইনের যথাযথ প্রয়োগ চান প্রবাসীরা
  • ড. মোমেন নিউইয়র্কে আসছেন না
  • রনেল-রাশেদ নেতৃত্তাধীন কমিটিই বৈধ কমিটি
  • error: Content is protected !! Please don\'t try to copy.