র্সবশেষ শিরোনাম

শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৮

বাংলা পত্রিকা

Main Menu

সপ্তাহের শুরুতে সম্পূর্ণ নতুন সংবাদ নিয়ে

নিউইয়র্কের ১০ মালিক-সম্পাদকের দ্বিতীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত

নিউইয়র্ক: তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক বাংলা সংবাদপত্রগুলো আজ এই প্রবাসে বাংলাদেশী কমিউনিটির উন্নয়নে যে ভূমিকা পালন করে আসছে, তাকে আরো সুসংহত করার লক্ষ্যে সবচেয়ে প্রাচীন ১০টি সংবাদপত্রের মালিক/সম্পাদকবৃন্দ দ্বিতীয়বারের মতো বৈঠকে বসেন গত ৮ জানুয়ারী সোমবার সন্ধ্যায় উডসাইডের গুলশান টেরাসে। বৈঠকে মালিক/সম্পাদকবৃন্দ প্রত্যেকে কমিউনিটি বিনির্মাণে বাংলা সংবাদপত্রগুলোর অবিসংবাদিক অবদানের কথা স্মরণ করেন। পাশাপাশি ভবিষ্যতে বাংলাদেশ কমিউনিটিকে এগিয়ে নিতে সংবাদপত্র আর কী ভূমিকা রাখতে পারে, সে বিষয়েও বক্তব্য দেন।
বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রকাশনার সময় অনুসারে সাপ্তাহিক ঠিকানার সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এম এম শাহীন, সাপ্তাহিক বাঙালীর সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, সাপ্তাহিক পরিচয় সম্পাদক নাজমুল আহসান, সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকার সম্পাদক আবু তাহের, সাপ্তাহিক বাংলাদেশ সম্পাদক ডা. এম ওয়াজেদ খান, সাপ্তাহিক জন্মভূমির সম্পাদক রতন তালুকদার, সাপ্তাহিক আজকালের প্রধান সম্পাদক জাকারিয়া মাসুদ জিকো, সাপ্তাহিক বর্ণমালা সম্পাদক মাহফুজুর রহমান ও সাপ্তাহিক প্রবাসের সম্পাদক মোহাম্মদ সাঈদ। সাপ্তাহিক দেশবাংলার সম্পাদক ডা. চৌধুরী সারোয়ারুল হাসান জরুরী কাজে ব্যস্ত থাকায় উপস্থিত হতে পারেননি।
সম্পাদকবৃন্দ প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করে বলেন, যারা দীর্ঘদিন ধরে বিপুল সংগ্রামের মধ্য দিয়ে নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও আজ পর্যন্ত প্রকাশনাকে অব্যাহত রেখেছেন, তাদের অটুট ঐক্যই যেমন সংবাদপত্রের প্রকাশনার যাত্রাপথকে নিষ্কন্টক করতে পারে, তেমনি এই ঐক্য কমিউনিটির সব ধরনের ভালো কাজকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করবে। তারা বলেন, সংবাদপত্রসমূহের নিরবচ্ছিন্ন প্রকাশনা যেমন কমিউনিটির উন্নয়নে ভূমিকা জোরদার করবে, তেমনি কমিউনিটির অগ্রগতিও সংবাদপত্রগুলোর প্রকাশনাকে সার্থক করে তুলবে।
মালিক/সম্পাদকবৃন্দ প্রায় ৩ দশক ধরে সংবাদপত্র প্রকাশনা অব্যাহত রেখে যারা শতাধিক ইমিগ্র্যান্টের কর্মসংস্থান করেছেন, পাঠক তৈরি করেছেন, বিজ্ঞাপনের বাজার পাঠক তৈরি করেছেন, বিজ্ঞাপনের বাজার সৃষ্টি করেছেন, কিন্তুু নানা কারণে আজ সেই বাজার নষ্ট হওয়ার লক্ষণ দেখা যাচ্ছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন এবং সংবাদপত্রসমূহের প্রকাশনায় ও সাংবাদিকতায় প্রফেশনালিজম বজায় রাখার ওপর জোর দেন।
সম্পাদকবৃন্দ বিজ্ঞাপনের মার্কেটকে নানা মাত্রায় সুসংহত করার ব্যাপারেও পরামর্শ রাখেন, সেই সঙ্গে নতুন বিজ্ঞাপন মার্কেটর আবিষ্কারের বিষয়েও আলোকপাত করা হয়। পরবর্তী সময়ে কমিউনিটির নেতৃবৃন্দকে নিয়ে কমিউনিটির সমস্যা সমাধানকল্পে টাউন হল মিটিংসহ অন্যান্য কর্মসূচি গ্রহণের ব্যাপারেও বৈঠকে আলোচনা হয়।
নিউইয়র্কের সবচেয়ে প্রাচীন ১০টি পত্রিকার সম্পাদকবৃন্দ আগামী মাসে একই জায়গায় তৃতীয় বৈঠকে মিলিত হবেন। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

এ রকম আরো খবর

গভীর শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় উত্তর আমেরিকায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন

নিউইয়র্ক: গভীর শ্রদ্ধায় বায়ান্ন’র ভাষা আন্দোলনে শহীদ বীর বাঙালীদের স্মরণবিস্তারিত

জাকির খানের প্রথম মৃত্যুবাষির্কী ২২ ফেব্রুয়ারী

নিউইয়র্ক: নিউইয়র্কে বাংলাদেশী কমিউনিটির পরিচিতমুখ, বিশিষ্ট রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী ওবিস্তারিত

প্রবাসের বাংলা সাংবাদিকতায় পেশাদারিত্ব চাই, সুস্থ প্রতিযোগিতা চাই

নিউইয়র্ক: প্রবাসের জনপ্রিয় টেলিভিশন টাইম টিভির মিডিয়া বিষয়ক বিশেষ মুক্তবিস্তারিত

  • ‘কমেমোরেটিভ গার্ডেন এন্ড প্ল্যাক’ নির্মাণের খবরে কমিউনিটিতে বিভ্রান্তি ও ক্ষোভ
  • ফ্লোরিডায় ২৫তম এশিয়ান ট্রেড-ফুড ফেয়ার ও কালচারার শো ১৭-১৮ মার্চ
  • অমর একুশ পালনে নিউইয়র্কে ব্যাপক প্রস্তুতি
  • বাংলাদেশের সঙ্কটে দেশপ্রেমিক কারো চুপ করে থাকার সময় নেই ॥ খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবী
  • বাংলাদেশের রাজনীতিতে সুরঞ্জিত সেন গুপ্তর মতো নেতার বড়ো প্রয়োজন
  • খালেদা জিয়ার মামলা ও রায় পুরো রাজনৈতিক
  • ভারপ্রাপ্ত যুক্তরাষ্ট্র আ.লীগ : আজাদ সভাপতি ফারুক সা. সম্পাদক
  • ঢাবি এলামনাই এসোসিয়েশন : শিশু-কিশোরদের প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে একুশের অনুষ্ঠান শুরু
  • ১১ ফেব্রুয়ারী ছিলো শামসুল আলম স্বপনের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী
  • নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেটের সামনে আ. লীগ-বিএনপির পাল্টাপাল্টি সমাবেশ
  • হোয়াইট হাউস ও স্টেট ডিপার্টমেন্টের সামনে বিএনপি’র বিক্ষোভ সমাবেশ
  • জাতিসংঘের সামনে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র ব্যাপক বিক্ষোভ
  • error: Content is protected !! Please don\'t try to copy.