র্সবশেষ শিরোনাম

শনিবার, মে ২৬, ২০১৮

বাংলা পত্রিকা

Main Menu

সপ্তাহের শুরুতে সম্পূর্ণ নতুন সংবাদ নিয়ে

নিউইয়র্কের ১০ মালিক-সম্পাদকের দ্বিতীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত

নিউইয়র্ক: তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক বাংলা সংবাদপত্রগুলো আজ এই প্রবাসে বাংলাদেশী কমিউনিটির উন্নয়নে যে ভূমিকা পালন করে আসছে, তাকে আরো সুসংহত করার লক্ষ্যে সবচেয়ে প্রাচীন ১০টি সংবাদপত্রের মালিক/সম্পাদকবৃন্দ দ্বিতীয়বারের মতো বৈঠকে বসেন গত ৮ জানুয়ারী সোমবার সন্ধ্যায় উডসাইডের গুলশান টেরাসে। বৈঠকে মালিক/সম্পাদকবৃন্দ প্রত্যেকে কমিউনিটি বিনির্মাণে বাংলা সংবাদপত্রগুলোর অবিসংবাদিক অবদানের কথা স্মরণ করেন। পাশাপাশি ভবিষ্যতে বাংলাদেশ কমিউনিটিকে এগিয়ে নিতে সংবাদপত্র আর কী ভূমিকা রাখতে পারে, সে বিষয়েও বক্তব্য দেন।
বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রকাশনার সময় অনুসারে সাপ্তাহিক ঠিকানার সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এম এম শাহীন, সাপ্তাহিক বাঙালীর সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, সাপ্তাহিক পরিচয় সম্পাদক নাজমুল আহসান, সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকার সম্পাদক আবু তাহের, সাপ্তাহিক বাংলাদেশ সম্পাদক ডা. এম ওয়াজেদ খান, সাপ্তাহিক জন্মভূমির সম্পাদক রতন তালুকদার, সাপ্তাহিক আজকালের প্রধান সম্পাদক জাকারিয়া মাসুদ জিকো, সাপ্তাহিক বর্ণমালা সম্পাদক মাহফুজুর রহমান ও সাপ্তাহিক প্রবাসের সম্পাদক মোহাম্মদ সাঈদ। সাপ্তাহিক দেশবাংলার সম্পাদক ডা. চৌধুরী সারোয়ারুল হাসান জরুরী কাজে ব্যস্ত থাকায় উপস্থিত হতে পারেননি।
সম্পাদকবৃন্দ প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করে বলেন, যারা দীর্ঘদিন ধরে বিপুল সংগ্রামের মধ্য দিয়ে নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও আজ পর্যন্ত প্রকাশনাকে অব্যাহত রেখেছেন, তাদের অটুট ঐক্যই যেমন সংবাদপত্রের প্রকাশনার যাত্রাপথকে নিষ্কন্টক করতে পারে, তেমনি এই ঐক্য কমিউনিটির সব ধরনের ভালো কাজকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করবে। তারা বলেন, সংবাদপত্রসমূহের নিরবচ্ছিন্ন প্রকাশনা যেমন কমিউনিটির উন্নয়নে ভূমিকা জোরদার করবে, তেমনি কমিউনিটির অগ্রগতিও সংবাদপত্রগুলোর প্রকাশনাকে সার্থক করে তুলবে।
মালিক/সম্পাদকবৃন্দ প্রায় ৩ দশক ধরে সংবাদপত্র প্রকাশনা অব্যাহত রেখে যারা শতাধিক ইমিগ্র্যান্টের কর্মসংস্থান করেছেন, পাঠক তৈরি করেছেন, বিজ্ঞাপনের বাজার পাঠক তৈরি করেছেন, বিজ্ঞাপনের বাজার সৃষ্টি করেছেন, কিন্তুু নানা কারণে আজ সেই বাজার নষ্ট হওয়ার লক্ষণ দেখা যাচ্ছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন এবং সংবাদপত্রসমূহের প্রকাশনায় ও সাংবাদিকতায় প্রফেশনালিজম বজায় রাখার ওপর জোর দেন।
সম্পাদকবৃন্দ বিজ্ঞাপনের মার্কেটকে নানা মাত্রায় সুসংহত করার ব্যাপারেও পরামর্শ রাখেন, সেই সঙ্গে নতুন বিজ্ঞাপন মার্কেটর আবিষ্কারের বিষয়েও আলোকপাত করা হয়। পরবর্তী সময়ে কমিউনিটির নেতৃবৃন্দকে নিয়ে কমিউনিটির সমস্যা সমাধানকল্পে টাউন হল মিটিংসহ অন্যান্য কর্মসূচি গ্রহণের ব্যাপারেও বৈঠকে আলোচনা হয়।
নিউইয়র্কের সবচেয়ে প্রাচীন ১০টি পত্রিকার সম্পাদকবৃন্দ আগামী মাসে একই জায়গায় তৃতীয় বৈঠকে মিলিত হবেন। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

এ রকম আরো খবর

সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

নিউইয়র্ক: ধর্মীয় ভাবগম্ভীর আর সৌহর্দ্যপূর্ণ পরিবেশে নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ইনক’রবিস্তারিত

বিএনপি নেতা মিল্টন ভূইয়ার মাতৃবিয়োগ

বাংলা পত্রিকা রিপোর্ট: বিশিষ্ট রাজনীতিক, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র সাবেক যুগ্ম আহ্বায়কবিস্তারিত

ধর্মীয় আবেশে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

নিউইয়র্ক: পবিত্র রমজান উপলক্ষ্যে ধর্মীয় আবেশে জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব আমেরিকারবিস্তারিত

  • খালেদা জিয়া জেলে, আমাদের বুকে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলছে ॥ অবিলম্বে মুক্তি দাবী
  • টেইলার সহকারী আবশ্যক
  • আব্দুল হাই জিয়া হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরেছেন
  • নিউইয়র্ক আবৃত্তি উৎসব’র প্রথম সফল অনুষ্ঠান
  • সভাপতি পদে শাহ নেওয়াজ, খায়ের, নয়নের নাম
  • হাজী ক্যাম্প মসজিদ ম্যানেজমেন্টের বিরুদ্ধে মামলা : নিউইয়কে স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম তনয়ের ১২টি এপার্টমেন্ট
  • রাজনৈতিক বিভাজন ভুলে পানি সমস্যার সমাধানে ঐক্য গড়তে হবে
  • রাফেল তালুকদার সভাপতি আশরাফ সা. সম্পাদক
  • নির্বাচিত হলে ইমিগ্র্যান্টদের অধিকার আদায়ে কাজ করবো : মিজান চৌধুরী
  • যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ নেতা সামাদ আজাদের বাসায় অগ্নিকান্ড ॥ একজনের লাশ উদ্ধার
  • খালেদা জিয়ার মুক্তি না হলে আন্দোলন
  • বাফস ও ৬৬ প্রিসেন্ট কমিউনিটি কাউন্সিলের আয়োজন : ব্রুকলীনে ‘টাইম টেলিভিশন-ব্রুস ফিসার’ বৈশাখী মেলায় মানুষের ঢল
  • error: Content is protected !! Please don\'t try to copy.