র্সবশেষ শিরোনাম

বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১৯, ২০১৮

বাংলা পত্রিকা

Main Menu

সপ্তাহের শুরুতে সম্পূর্ণ নতুন সংবাদ নিয়ে

ভাড়াটিয়ারা দিশেহারা

নিউইয়র্কে পণ্যদ্রব্যের চেয়েও উর্ধগতিতে বাড়ছে বাড়ী ভাড়া

বাংলা পত্রিকা রিপোর্ট: বিশ্বের রাজধানী এবং অভিবাসী বান্ধব হিসাবে খ্যাত নিউইয়র্কে বাড়ী ভাড়া এখন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। পণ্যদ্রব্যের চেয়েও উর্ধ্বগতিতে এই বৃদ্ধির হার বলে জানিয়েছেন একজন প্রবাসী বাংলাদেশী। অপরদিকে বাড়ীর সামনে ‘টু-লেট’ সাইন ঝুলানোর পরও এশিয়ান বা কালোবর্ণের কেউ গেলে অনেকে বাড়ীভাড়া দিতে অনীহা প্রকাশ করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে সোস্যাল জাষ্টিস কমিশনে কয়েকশত অভিযোগ জমা পড়ার পর গভর্ণর এন্ড্রু কুমোর অফিসও নড়ে চড়ে বসেছে বলে জানা গেছে।
ওজনপার্ক এলাকায় বসবাসরত বাংলাদেশী মনজেলুর রহমান জানান, বাড়ী ভাড়া বাড়বে এটাই স্বাভাবিক। তবে তা হতে হবে একটা নীতিমালার মধ্যে। অতীতে এই বৃদ্ধির হার সহনীয় হলেও এখন কেউ নিয়মের তোয়াক্কা করছে না। এতে একদিকে যেমন বাড়ী ভাড়া দিতে ভাড়াটিয়াদের নাভিশ্বাস উঠছে অপর দিকে বাসা মালিকদের সাথেও দূরত্ব সৃষ্টি হচ্ছে।
নিউইয়র্কের এস্টোরিয়া, জ্যামাইকা, ওজনপার্ক, ব্রকলীন এবং ব্রঙ্কসে বাড়ী ভাড়া বৃদ্ধির চিত্র একই। তবে কুইন্সের পর ব্রুকলীনে এই বৃদ্ধির হার বেশী। ব্রঙ্কসে বৃদ্ধির হার তুলনামুলকভাবে কম বলে জানা গেছে। ভুক্তভোগীরা জানান নিউইয়র্কে লোক সংখ্যা যেভাবে বাড়ছে সেভাবে বাসা বাড়ী বাড়ছেনা। ফলে বাড়ী বা এ্যাপার্টমেন্ট মালিকরা ভাড়া বাড়ানোর সুযোগ নিচ্ছে।
ব্রুকলীনের নিউকার্কে বসবাসরত বাংলাদেশী আহমেদুল ইসলাম বলেন, এক থেকে দুই বছর আগে এলাকাভেদে যেখানে ৯ থেকে ১১শ ডলারে ১ বেড রুমের বাড়া ভাড়া পাওয়া যেতো। এখন সেজন্য গুনতে হচ্ছে ১৩ শত থেকে ১৬শত ডলার।
জানা গেছে কুইন্সের বিভিন্ন এলাকায় বাসাভাড়া বৃদ্ধির মধ্যে শীর্ষে রয়েছে এস্টোরিয়া। এলাকাটি ম্যানহাটন সংলগ্ন বলে বাড়ী বা এ্যাপার্টমেন্ট মালিকরা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ী ভাড়া বাড়াচ্ছেন বলে অনেকে অভিযোগ করেছেন। ৩৬ এভিনিউ এর একটি ১ বেড রুমের বাসা ভাড়া ১৯শ ডলার বলে একজন বাংলাদেশী জানিয়েছেন।
জ্যামাইকাতে বসবাসরত একটি গ্রোসারী দোকানের বাংলাদেশী মালিক ফয়েজ আহমদ বলেন আমি ১০ বছর আগে এস্টোরিয়ার ৩৬ স্ট্রিটে ছিলাম।তখন ১ বেডরুমের একটি বাসা ভাড়া দিতাম ৭২০ ডলার। দশ বছরে বেড়ে গিয়ে দাড়ায় ১৯শ ডলারে। ওই এলাকার আর একজন বাংলাদেশী তনু ইসলাম বলেন আমার বর্তমান বাসায় ১১০০ ডলার ভাড়ায় উঠেছিলাম। কিন্তু প্রতি বছরই তা বৃদ্ধি পেয়ে বর্তমানে ১৭৫০ ডলারে দাড়িয়েছে।
বাসস্থানের ক্ষেত্রে নিউইয়র্ক বড়ই নির্মম বলে জানালেন একজন বাংলাদেশী। তিনি বলেন দিনরাত পরিশ্রম করে যে অর্থ রোজগার করি তার দুই তৃতীয়াংশই চলে যায় বাড়ী ভাড়ায়। সারাক্ষণ তটস্থ থাকতে হয় কখনো বাড়ী ওয়ালা কখনোবা ম্যানেজমেন্ট বা সুপারের জন্য। বাসা ভাড়া দিতে একটু বিলম্ব হলে রাতের ঘুম হারাম করে দেয়।
নিউইয়র্ক শহরের কোন এলাকায় অর্থ দিলেও নানা শর্তের বেড়াজালে পড়ে বাসা ভাড়া মেলেনা। যেমন যুক্তরাষ্ট্রের সর্ববৃহৎ আবাসিক কমপ্লেক্স বলে পরিচিত ব্রঙ্কসের পার্কচেষ্টারে রয়েছে ভাড়া নেয়ার বিভিন্ন শর্তাবলী। এর অন্যতম হচ্ছে যারা বাসা নেবেন তাদের গত বছরের ট্যাক্স ফাইল হতে ১ বেডরুমের জন্য ৩৫ হাজার ডলার। ২ বেডরুমের জন্য ৪৫ হাজার এবং তিন বেডের জন্য ৫৫ হাজার ডলার। শুধু তাই নয় তার একমাসের পে ষ্টাব প্রদর্শন করা ছাড়াও কর্তৃপক্ষ ক্রেডিট লাইন চেক করে থাকেন।
ব্রঙ্কসের কনডোমিনিয়ামে বসবাসরত বাংলাদেশী মোস্তাফিজুর বলেন, তিনি গত কয়েক বছর আগে স্থানীয় আর্চার রোডে ১ বেডরুমের একটি বাসা ৯৫০ ডলারে ভাড়া নিয়েছিলেন। এখন সে বাসাই ১৩০০ ডলারে ভাড়া থাকেন।
অন্য একজন বাংলাদেশী জানান সাউথ কন্ডোমিনিয়াম কর্তৃপক্ষ গত ফেব্রুয়ারী মাসে ‘ক্যাপিটাল ইমপ্রুভমেন্ট’ এর নামে ১৬% সার্ভিস চার্য বৃদ্ধি করায় বাড়ীওয়ালারা ১ বেডরুমের বাসায় ১০০ ডলার এবং ২ বা ৩ বেড রুমে আনুপাতিক হারে ভাড়া বৃদ্ধি করেছে। যদিও এর বিরুদ্ধে মামলা করায় মেইনটেনেন্স বৃদ্ধির উপর স্থগিতাদেশ জারী রয়েছে। কিন্তু বেশীরভাগ বাড়ী ওয়ালারা তা না মেনে ১৬% সার্ভিস চার্য যোগ করে ইতিমধ্যেই বাড়ী ভাড়া বাড়িয়ে দিয়েছেন।

এ রকম আরো খবর

চার্টার্ড একাউন্ডেন্ট আশরাফ সিদ্দিকী’র যুক্তরাষ্ট্র সফর

নিউইয়র্ক: নিউইয়র্কে বসবাসরত মৌলবভীবাজার জেলার কুলাউরা উপজেলার ভাটেরা স্টকুল এন্ডবিস্তারিত

সড়ক দূর্ঘটনায় লায়েক তরফদার আহত

বাংলা পত্রিকা রিপোর্ট: কমিউনিটির পরিচিতমুখ লায়েক হাসান তরফদার সড়ক দূর্ঘটনায়বিস্তারিত

ড্রামা সার্কেল, বিপা, আনন্দধারা’র মনোজ্ঞ আয়োজন : প্রাণের উচ্ছ্বাসে প্রবাসীদের বাংলা বর্ষবরণ

বাংলা পত্রিকা রিপোর্ট: প্রাণের উচ্ছ্বাসে প্রবাসী বাংলাদেশীরা নতুন বাংলা বছরবিস্তারিত

  • নিউইর্য়ক আবৃত্তি উৎসব-২০১৮ : প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত
  • বাংলা পত্রিকা ও টাইম টিভিতে ড. নীনা আহমেদ : ট্রাম্প প্রশাসনের অভিবাসন বিরোধী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে স্ট্যান্ড নিতে হবে
  • জ্যামাইকা-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডস সোসাইটির বৈশাখী মেলা ২৮ এপ্রিল শনিবার
  • নিউইয়র্কে পহেলা বৈশাখের প্রস্তুতি
  • অভিবাসীরা হচ্ছেন নিউইয়র্ক সিটি ও কুইন্সের সম্পদ
  • বাংলাদেশ সোসাইটির ৭ সদস্যের ইসি গঠিত
  • জলবায়ূর পরিবর্তনের ক্ষতি আন্তর্জাতিক ফোরামে তুলে ধরা জরুরী
  • মুশরাত হকের দ্রুত সুস্থতা কামনা এবং চালকের শাস্তির দাবীতে জ্যামাইকায় নিসচা’র মানববন্ধন
  • বাংলাদেশ-আমেরিকান কার ও লিমোজিন এসোসিয়েশন ইনক-এর জরুরী যৌথ সভা অনুষ্ঠিত
  • মিশিগানে তৈরী হচ্ছে ‘বাংলাদেশী মুরাল’
  • পিপল এন টেক’র মিলিয়ন ডলারের স্কলারশীপ ঘোষণা
  • কুইন্স বরো হলে বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন
  • error: Content is protected !! Please don\'t try to copy.